আজকের সারের দাম | ইউরিয়া,পটাশ,টিএসপি সারের দাম । Ajker Sarer Dam 2023

বাংলাদেশের কৃষি খাত অপরির্হায এবং অত্যাবশ্যকীয় একটি খাত। কালের বিবর্তনে এবং প্রযুক্তির ছোয়ায় মানুষের জীবন যাত্রার মান যতই উন্নত এবং আধুনিক হউক না কেন , কৃষি ছাড়া সবই ভিত্তিহীন। কৃষি কাজে ফসল উৎপাদনে সারের ভুমিকা বলে শেষ করা যাবে না। সার ব্যবহারে ফসলের ফলন এবং খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধিতে উল্লেখযোগ্যভাবে অবদান রেখেছে।

আজকের সারের দাম কত | ইউরিয়া,পটাশ,টিএসপি সারের দাম । Ajker Sarer Dam 2023
আজকের সারের দাম কত

আজকের নিবন্ধে আমরা আজকের সারের দাম কত,ইউরিয়া সারের দাম ২০২৩,পটাশ সারের দাম ২০২৩, টিএসপি সারের দাম ২০২৩,ডিএপি সারের দাম ২০২৩,Ajker Sarer Dam 2023,এম,ও,পি সারের দাম ২০২৩,জিএপি সারের দাম ২০২৩,ইউরিয়া,পটাশ,টিএসপি সারের দাম কেমন সম্পর্কে বিস্তারিত জানবো।

আজকের সারের দাম

সামগ্রিকভাবে, ফসলের উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি করে এবং দেশের খাদ্য নিরাপত্তায় সারের গুরুত্ব অপরিসীম। দেশে কৃুষিকাজে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত সার হল ইউরিয়া, ট্রিপল সুপারফসফেট (টিএসপি), ডায়ামোনিয়াম ফসফেট (ডিএপি), এবং মিউরিয়েট অফ পটাশ (এমওপি)। ইউরিয়া সর্বাধিক ব্যবহৃত নাইট্রোজেন সার, যখন টিএসপি এবং ডিএপি ফসফেটিক সার। মাটির পটাসিয়ামের ঘাটতি পূরন করতে এমওপি ব্যবহার করা হয়।

বাংলাদেশে সারের একটি উল্লেখযোগ্য চাহিদা রয়েছে। বিশেষ করে, দেশে প্রতি বছর ২.৬ মিলিয়ন টন ইউরিয়া, ৭৫০০০০ টন টিএসপি, ১৬০০০০ টন ডিএপিপি এবং ৪৫০০০০ টন এমওপি প্রয়োজন হয়। বর্তমানে ইউরিয়া ও পটাশ সারের ঘাটতি রয়েছে।

বর্তমানে বাজারে সারের দাম বেড়েই চলেছে। ইউরিয়া সারের দাম বেড়েছে কেজিতে ৫ টাকা, ডিলার পর্যায়ে ২০ টাকা এবং কৃষকদের জন্য ২২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এক বস্তা ইউরিয়া সারের দাম ১২০০-১৩০০ টাকা, জিএপি সারের দাম ১০০০ টাকা থেকে ১৩০০ টাকা হারে বিক্রি হচ্ছে। এক বস্তা এমওপির সার বিক্রি হচ্ছে ১২০০ থেকে ১৩০০ টাকায়। এক বস্তা টিএসপি সার পাওয়া যাচ্ছে ১১০০ টাকা থেকে ১২৫০ টাকা পর্যন্ত।

ইউরিয়া সারের দাম ২০২৩

ইউরিয়া সার কৃষিকাজে ব্যাপক ভাবে ব্যবহার হয়। বাংলাদেশে প্রতি বছর ২.৬ মিলিয়ন টন ইউরিয়া সারের চাহিদা রয়েছে। সম্প্রতি ইউরিয়া সার প্রতি কেজিতে ৫ টাকা করে বেড়ে গেছে।

  • ১ কেজি ইউরিয়া সারের দাম ২২ টাকা।
  • ১ বস্তা (৫০ কেজি) ইউরিয়া সারের দাম ৮০০ টাকা।
  • কৃষক পর্যায়ে ১ বস্তা ইউরিয়া সার ‍বিক্রি হচ্ছে ১২০০ থেকে ১৩০০ টাকা পর্যন্ত।

পটাশ সারের দাম ২০২৩

পটাশ সার কৃষিকাজে ব্যাপক ব্যবহার হয়। বাংলাদেশে পটাশ সারের ঘাটতি রয়েছে। রাশিয়া থেকে ১২০০০০ মেট্রিক টন মিউরেট অফ পটাশ (এমওপি) সার আমদানি করার চেষ্টা করছে ।

  • ১ কেজি পটাশ সারের দাম ৪৫ টাকা।
  • ১ বস্তা (৫০ কেজি) পটাশ সারের দাম ২২৫০ টাকা।
  • কৃষক পর্যায়ে ১ বস্তা পটাশ সার ‍বিক্রি হচ্ছে ১৪০০ থেকে ১৬০০ টাকা পর্যন্ত।

টিএসপি সারের দাম ২০২৩

সকল সারের দাম বাড়ায় টিএসপি সারের দাম ও বেড়ে গেছে। ৭৫০০০০ টন টিএসপি সারের চাহিদা রয়েছে বাংলাদেশে।

  • ১ কেজি টিএসপি সারের দাম ২২ টাকা।
  • ১ বস্তা (৫০ কেজি) টিএসপি সারের দাম ১১০০ টাকা।
  • কৃষক পর্যায়ে ১ বস্তা টিএসপি সার ‍বিক্রি হচ্ছে ১২০০ থেকে ১৩৫০ টাকা পর্যন্ত।

ডিএপি সারের দাম ২০২৩

ইউরিয়া, টিএসপি, জিএপি এবং পটাশ সারের মতো, এমওপি সারেরও ঘাটতি রয়েছে। সকল সারের দাম বাড়ায় ডিএপি সারের দাম ও বেড়ে গেছে। ১৬০০০০ টন ডিএপি সারের চাহিদা রয়েছে দেশে।

  • ১ কেজি ডিএপি সারের দাম ২৭ টাকা।
  • ১ বস্তা (৫০ কেজি) ডিএপি সারের দাম ১৩৫০ টাকা।
  • কৃষক পর্যায়ে ১ বস্তা ডিএপি সার ‍বিক্রি হচ্ছে ১৫০০ থেকে ১৮০০ টাকা পর্যন্ত।

এমওপি সারের দাম ২০২৩

বাংলাদেশে পটাশ সারের মতো এমওপি সারের ঘাটতি রয়েছে। ৪৫০০০০ টন এমওপি সারের চাহিদা রয়েছে বাংলাদেশে। সকল সারের দাম বাড়ায় এমওপি সারের দাম ও কিছুটা বেড়ে গেছে।

  • ১ কেজি এমওপি সারের দাম ১৫ টাকা।
  • ১ বস্তা (৫০ কেজি) এমওপি সারের দাম ৭৫০ টাকা।
  • কৃষক পর্যায়ে ১ বস্তা এমওপি সার ‍বিক্রি হচ্ছে ১০০০ থেকে ১১০০ টাকা পর্যন্ত।

সারের দাম সম্পর্কিত প্রশ্ন ও উত্তর

১ কেজি ইউরিয়া সারের দাম কত?

১ কেজি ইউরিয়া সারের দাম ২২ টাকা।

১ কেজি পটাশ সারের দাম কত?

১ কেজি পটাশ সারের দাম ৪৫ টাকা।

১ কেজি ডিএপি সারের দাম কত?

১ কেজি টিএসপি সারের দাম ২২ টাকা।

১ কেজি এমওপি সারের দাম কত?

১ কেজি এমওপি সারের দাম ১৫ টাকা।

বর্তমানে কৃষিকাজে ব্যবহৃত সারের দাম অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। সারের দাম বৃদ্ধির কারণে কৃষিভিত্তিক পন্যের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। আশা করছি আজকের সারের দাম কত? নিবন্ধটি আপনাদের কাজে এসেছে এখান থেকে ইউরিয়া সারের দাম,পটাশ সারের দাম,টিএসপি সারের দাম,ডিএপি সারের দাম,এমওপি সারের দাম সম্পর্কে জেনে গেছেন। বাজারের সকল পন্যের দাম জানতে আমাদের বাজার দর সেকশনটি দেখার অনুরোধ রইলো। ধন্যবাদ

5/5 - (1 vote)

মন্তব্য করুন

x