আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস । ২১ শে ফেব্রুয়ারির স্ট্যাটাস,ক্যাপশন ও ব্যানার 2024

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস

বাঙ্গালি বা বাংলা ভাষাভাষীদের জন্য আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস (২১ শে ফেব্রুয়ারি) একটি স্বরণীয় এবং গৌরবোজ্জ্বল দিন। ১৯৫২ সালের এই দিনে (৮ ফাল্গুন, ১৩৫৮, বৃহস্পতিবার) বাংলাকে পূর্ব পাকিস্তানের অন্যতম রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে আন্দোলনরত ছাত্রদের ওপর পুলিশের গুলিবর্ষণে অনেক তরুণ শহীদ হন। তাদের মধ্যে অন্যতম হলো রফিক, জব্বার, শফিউর, সালাম, বরকত সহ আরো অনেকেই। সেই থেকে এ দিনটি (Ekushey February) শহীদ দিবস বা মাতৃভাষা দিবস হিসেবে চিহ্নিত। ২০০০ সাল থেকে শুরু করে প্রতি বছর ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালন করা হয়।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালনের ইতিহাস

১৯৫২ সালের এই দিনে (৮ ফাল্গুন, ১৩৫৮, বৃহস্পতিবার) বাংলাকে পূর্ব পাকিস্তানের অন্যতম রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে আন্দোলনরত ছাত্রদের ওপর পুলিশের গুলিবর্ষণে অনেক তরুণ শহীদ হন। তাদের মধ্যে অন্যতম হলো রফিক, জব্বার, শফিউর, সালাম, বরকত সহ আরো অনেকেই।

১৯৯৮ সালের ২৯ মার্চ কফি আনানের কাছে ২১ শে ফেব্রুয়ারিকে ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার জন্য ঘোষণার প্রস্তাব দেয়া হয়। কফি আনান ছিলেন কানাডার ব্রিটিশ কলোম্বিয়ার মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ লাভার্স অব দ্যা সোসাইটি জাতি সংঘের মহাসচিব। আর এই সোসাইটি সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম। তিনি ২১ শে ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার ক্ষেত্রে বেশ বড় ভূমিকা পালন করেছিলেন। এই প্রস্তাবনা সাক্ষর করেছিলেন প্রায় ১০ জন যারা ছিলেন ভিন্ন ভাষাভাষীর মানুষ। 

এরপর জাতিসংঘের পরামর্শ অনুযায়ী এই প্রস্তাবনা নিয়ে প্যারিসে জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি বিষয়ক সংগঠন ইউনেস্কোতেও যোগাযোগ করা হয়। এভাবেই কেটে যায় ১ বছর। ১ বছর পর অর্থাৎ, ১৯৯৯ সালের ৩ মার্চ আবার শুরু করা হয় এই আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস স্বীকৃতি নিয়ে। পথ চলা শুরু করেন মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম।

আন্তর্জাতিক এবং স্থানীয় পর্যায়ে অনেক প্রতিকূলতা পেরিয়ে ১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর ২১ শে ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে থাকে। এই প্রস্তাবনায় ১৮৮ টি দেশ সমর্থন জানান এবং সাধারণ পরিষদের ৬৫ তম অধিবেশনে উপস্থাপন করে বাংলাদেশ। ২০০০ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে দিবস আন্তর্জাতিক মর্যাদা দিয়ে পালিত হয়ে আসছে প্রতিবছর।

২১ শে ফেব্রুয়ারির স্ট্যাটাস

২১ শে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় স্ট্যাটাস দেওয়ার জন্য জনপ্রিয় স্ট্যাটাস সমূহ নিচে দেওয়া হলোঃ

“ফেব্রুয়ারী আমার ভাইয়ের,ফেব্রুয়ারী আমার মায়ের,একুশে ফেব্রুয়ারী,আমি কি ভুলিতে পারি…ফেব্রুয়ারী ফেব্রুয়ারীবাংলা ভাষার মাস।বাংলা আমার মাতৃভাষামিটাই মনের আশ।”‘অমর একুশে’ তথা ভাষা দিবসের তাৎপর্যপূর্ণ দিনটিতে সকলের প্রতি রইল আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন !!

আমরা বাঙালি, বাংলা আমার জাতি, বাংলা আমার ভাষা। একুশে ফেব্রুয়ারি স্মরণে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের শুভেচ্ছা জানাই সকল শুভানুধ্যায়ীদের !

যুগ যুগ ধরে ভাষা শহীদরা এবং তাঁদের আত্মত্যাগ থেকে যাবে বাঙালির চিত্তে এবং মননে,তাই এই দিনটিতে স্মরণ করি সেই বীর আত্মাদের…. যাদের জন্য বাংলা ভাষা আজ পেয়েছে তার মহিমান্বিত স্বীকৃতি। সকল আপনজনদের জানাই একুশে ফেব্রুয়ারি তথা ভাষা দিবসের শুভেচ্ছা!!

ফেব্রুয়ারির এই একুশ আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো …তাই এই ২১ আমি কখনো ভুলতে পারিনা!!সকল শহীদদের জানাই আমার সেলাম!! শহীদ দিবস তথা ভাষা দিবসের আন্তরিক অভিনন্দন !!

আজ আমাদের মাতৃভাষা বাংলা; আজ আমরা বাংলা বলতে পারি শুধুমাত্র ভাষা শহীদদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে, তাই আমরা তাদের কখনো ভুলবো না। তাঁদের অপরাজেয় শক্তিকে প্রণাম জানাই!! ভাষা দিবসের অভিনন্দন রইল !!

যদি এই ভাষাটা না থাকতো
তবে এত কাব্য এত কবিতা কে লেখত।
যদি এই ভাষাটা না থাকতো
তবে ভালোবাসি এই মিষ্টি কথাটা কে বলত।
যদি এই ভাষাটা না থাকতো
তবে মাকে এত মধুর সুরে কে ডাকত।
সব্বাইকে ২১শে ফেব্রুয়ারীর শুভেচ্ছা।

ফাল্গুণ মানে বর্ণ মালার খেলা,
ফাল্গুণ মানে হাজার ফুলের মেলা,
ফাল্গুণ মানে ফুটন্ত লাল গোলাপ,
ফাল্গুণ মানে স্বাধীনতার আলাপ,
ফাল্গুণ মানে ভাষার মেলা
আমার তোমার সবার।
সবাইকে ২১শে ফেব্রুয়ারীর শুভেচ্ছা।

২১ শে ফেব্রুয়ারির ক্যাপশন

২১ শে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্যাপশন দেওয়ার জন্য জনপ্রিয় ক্যাপশন সমূহ নিচে দেওয়া হলোঃ

“মোদের গরব মোদের আশা আ’মরি বাংলা ভাষা” .. হৃদয় যায় জুড়িয়ে – যখন শুনি গ্রাম বাংলার গান ; মধুর বাংলা গানের শুর । মন যায় ভরে যখন প্রান খুলে কথা বলি আমার মায়ের ভাষায়; বাংলা ভাষায় । আজ একুশে ফেব্রুয়ারির পুণ্যলগ্নে স্মরণ করি সেই সব বীর শহিদদের যাঁদের রক্তক্ষরণে আমরা পেয়েছিলাম বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে!!! ভাষা দিবসের আন্তরিক অভিনন্দন ; শহীদ দিবস ও অমর রহে রহে!!!

রক্তাক্ত এক ফাগুন দিনেমাতৃভাষা আনলো কিনেপ্রাণের বিনিময়ে,রক্তস্রোত যায় যে বয়েআছে ইতিহাস সাক্ষী হয়েঅদ্ভুত এক বিস্ময়ে!একুশে ফেব্রুয়ারি ভাষা দিবসের সংগ্রামী অভিনন্দন!!

নানান্ দেশে নানান্ ভাসা (ভাষা) বিনে স্বদেশীয় ভাসে পূরে কি আশা ?কত নদী সরোবর,কি বা ফল চাতকীর | ধরাজল বিনে কভু ঘুচে কি ত্রিষা (তৃষা) ? বাংলা ভাষা অমর রহে !!ভাষা দিবসের শুভেচ্ছা !!

মাতৃভাষা দিবস ২১ শে ফেব্রুয়ারি উক্তি

মাতৃভাষা দিবস ২১ শে ফেব্রুয়ারির উক্তি সমূহ নিচে দেওয়া হলোঃ

ভাষা চিন্তার পোশাক- স্যামুয়েল জনসন

আমার ভাষার সীমা আমার বিশ্বের সীমা” – লুডভিগ উইটগেনস্টাইন

আমরা ভারতীয়দের জন্য, আমি মনে করি না ইংরেজি কখনো আবেগের সেই জাদুকে উড়িয়ে দিতে পারে যা আমাদের মাতৃভাষা করতে পারে- কৈলাশ খের

২১ শে ফেব্রুয়ারি ব্যানার

মাতৃভাষা দিবস ২১ শে ফেব্রুয়ারির জনপ্রিয় ব্যানার সমূহঃ

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে প্রশ্ন ও উত্তর

কবে থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালন করা হয়?

২০০০ সাল থেকে শুরু করে প্রতি বছর ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালন করা হয়।

প্রিয় পাঠকবৃন্ধ, আশা করছি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস, ২১ শে ফেব্রুয়ারির স্ট্যাটাস,ক্যাপশন ও ব্যানার 2024 সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। এমন সমসাময়িক বিষয় জানতে আমাদের সাইটটি ভিজিট করতে পারেন। ধন্যবাদ

4/5 - (3 votes)

মন্তব্য করুন

x