সরকারি চাকরিজীবীদের বিভিন্ন প্রকার ছুটি ও মেয়াদকাল । সরকারি ছুটির বিধিমালা 2023

প্রিয় পাঠকবৃন্ধ, আজকের নিবন্ধে আমরা সরকারি চাকরিজীবীদের বিভিন্ন প্রকার ছুটি ও মেয়াদকাল সম্পর্কে আলোচনা করবো। একজন সরকারি কর্মচারীর সরকারি ছুটির বিধিমালা জেনে রাখা জরুরী কারণ কখন কি ছুটি নিতে হবে। সরকারি কর্মচারী চাকরিকালীন সময়ে তাঁর ছুটি সংক্রান্ত বিধি বিধান সম্পর্কে ধারনা রাখা অত্যাবশ্যক। নির্ধারিত ছুটি বিধিমালা ১৯৫৯ অনুসারে, বিভিন্ন প্রকারের ছুটি, ছুটির মেয়াদকাল নিচে আলোচনা করা হবে।

অনেকেই সরকারি চাকরিজীবীদের বিভিন্ন প্রকার ছুটি ও মেয়াদকাল সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন সেজন্যই আজকের এই সরকারি ছুটি বিষয়ক নিবন্ধটি সাজানো হয়েছে। এছাড়াও সরকারি চাকরিজীবীদের ছুটি সম্পর্কে আমরা যেসকল বিষয় খুজেঁ থাকি- সরকারি চাকরিতে বিভিন্ন ছুটির মেয়াদ,বিভিন্ন প্রকার সরকারি ছুটির কারণ ও মেয়াদকাল,সরকারি ছুটি বিধিমালা,সরকারি চাকরির বিভিন্ন ছুটির বিধান,সরকারি চাকরির বিভিন্ন ছুটির নিয়ম,নৈমিত্তিক ছুটি বিধিমালা,সিএল ছুটির নিয়ম,সরকারি কর্মচারীদের ছুটি বিধি,সরকারি চাকরিজীবীদের ছুটির প্রকার ইত্যাদি।

sorkari cakrijibider chuti
সরকারি চাকরিজীবীদের বিভিন্ন প্রকার ছুটি ও মেয়াদকাল

সরকারি চাকরিজীবীদের বিভিন্ন প্রকার ছুটি ও মেয়াদকাল

বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মরত কর্মচারীদের বিভিন্ন মেয়াদে ছুটির বিধান রয়েছে। নির্ধারিত ছুটি বিধিমালা ১৯৫৯ অনুসারে সর্বমোট ১২ রকমের ছুটির বিধান রয়েছে। নিচে ১২ প্রকার সরকারি চাকরিজীবীদের ছুটি ও মেয়াদকাল সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছেঃ

গড় বেতনে অর্জিত ছুটি/ ইএল ছুটি

সরকারি চাকরিজীবীদের ছুটি বিধিমালা ১৯৫৯ এর ৩(১) (i) নং বিধিমতে একজন সরকারি কর্মচারী কর্মকালীন সময়ের প্রতি ১১ দিনের জন্য ১ দিন হিসাবে গড় বেতনে ছুটি অর্জিত হবে। অর্থাৎ সে হিসাবে ছুটি অর্জনের হার হইবে কর্মকালীন সময়ের ১/১১। চাকরিতে যোগদানের পর থেকেই এই ছুটি অর্জন হতে থাকবে।

গড় বেতনে অর্জিত ছুটি/ ইএল ছুটি চার মাস ছুটি কাটানো যায় ছুটি প্রাপ্তি সাপেক্ষে তবে, চার মাসের অতিরিক্ত ছুটি ভোগের ক্ষেত্রে এই সীমা ছয় মাসে বর্ধিত করা যাইবে ।

অর্ধ গড় বেতনে অর্জিত ছুটি

কর্মকালীন সময়ের ১২ ভাগের ১ ভাগ হারে অর্ধ গড় বেতনে ছুটি অর্জিত হইবে এবং অর্ধ গড় বেতনে ছুটি সীমাহীনভাবে জমা হতে থাকবে।

অর্ধ গড় বেতনে অর্জিত ছুটি এক (০১) বছর ছুটি কাটানো যায় তবে মেডিকেল সার্টিফিকেটের ভিত্তিতে দুই বছর পর্যন্ত ছুটি নেওয়া যাবে।

আরো দেখুনঃ

অসাধারন ছুটি

যখন কোন সরকারি কর্মচারীর অন্য কোন ছুটি পাওনা থাকে না তখন শুধুমাত্র অস্বাভাবিক ছুটির জন্য আবেদন করা যায়।

অসাধারণ ছুটির মেয়াদ একনাগাড়ে তিন মাস ছুটি নেওয়া যায় তবে স্বাস্থ্যগত সমস্যা থাকলে সবোর্চ্চ এক (০১) বছর পর্যন্ত নেওয়া যাবে।

অক্ষমতা জনিত ছুটি

কোন সরকারী কর্মচারী দায়িত্ব পালনকালে আহত হয়ে অক্ষম হলে সেক্ষেত্রে বিশেষ অক্ষমতা জনিত ছুটি নিতে পারবে। সরকারী কর্মচারীরা প্রয়োজনে এই ছুটি একাধিকবার নিতে পারে।

অক্ষমতা জনিত ছুটির ক্ষেত্রে মেডিক্যাল বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুসারে অথবা সর্বোচ্চ দুই (০২) বছর ছুটি কাটাতে পারবেন।

অধ্যয়ন ছুটি

সংগনিরোধ ছুটি
প্রসূতি/মাতৃত্বকালীন ছুটি
চিকিৎসালয় ছুটি
প্রাপ্যতাবিহীন ছুটি
অবসর প্রস্তুতি ছুটি/পিআরএল ছুটি
নৈমিত্তিক ছুটি/সিএল ছুটি
শ্রান্তি বিনোদন ছুটি
gov holidays applicable
সরকারি চাকরিতে বিভিন্ন ছুটির মেয়াদ

সরকারি চাকরিজীবীদের ছুটি ও মেয়াদকাল সম্পর্কিত প্রশ্ন ও উত্তর

গড় বেতনে অর্জিত ছুটি/ ইএল ছুটি কত দিন?

গড় বেতনে অর্জিত ছুটি/ ইএল ছুটি চার মাস ছুটি কাটানো যায় ছুটি প্রাপ্তি সাপেক্ষে তবে, চার মাসের অতিরিক্ত ছুটি ভোগের ক্ষেত্রে এই সীমা ছয় মাসে বর্ধিত করা যাইবে ।

অর্ধ গড় বেতনে অর্জিত ছুটি কত দিন?

অর্ধ গড় বেতনে অর্জিত ছুটি এক (০১) বছর ছুটি কাটানো যায় তবে মেডিকেল সার্টিফিকেটের ভিত্তিতে দুই বছর পর্যন্ত ছুটি নেওয়া যাবে।

অসাধারন ছুটি কত দিন?

অসাধারণ ছুটির মেয়াদ একনাগাড়ে তিন মাস ছুটি নেওয়া যায় তবে স্বাস্থ্যগত সমস্যা থাকলে সবোর্চ্চ এক (০১) বছর পর্যন্ত নেওয়া যাবে।

অক্ষমতা জনিত ছুটি কত দিন?

অক্ষমতা জনিত ছুটির ক্ষেত্রে মেডিক্যাল বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুসারে অথবা সর্বোচ্চ দুই (০২) বছর ছুটি কাটাতে পারবেন।

প্রিয় পাঠক, আশা করছি আজকের সরকারি চাকরিজীবীদের ছুটি ও মেয়াদকাল সম্পর্কিত আলোচনা আপনাদের চাকরির ক্ষেত্রে কাজে আসবে। নিবন্ধটি ভালো লাগলে শেয়ার করে আপনার টাইমনলাইনে রেখে দিতে পারেন। এমন আরো প্রয়োজনীয় তথ্য জানতে আমাদের সাইটের সাধারন জ্ঞান সেকশনে দেখে নিতে পারেন। ধন্যবাদ

4.8/5 - (5 votes)

“সরকারি চাকরিজীবীদের বিভিন্ন প্রকার ছুটি ও মেয়াদকাল । সরকারি ছুটির বিধিমালা 2023”-এ 1-টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

x